ক্লান্তি দূর করার সহজ ১০ উপায়

কর্মক্ষেত্রে ক্লান্তি দূর করতে চান? জেনে নিন ১০টি অব্যর্থ উপায়

ক্লান্তি দূর করার সহজ ১০ উপায়

সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত অফিস। এর মাঝে অফিসের বিভিন্ন সমস্যা আর তার সমাধান করা। বসের ঝাড়ি কিংবা কর্মীদের সাথে মন কষাকষি তো আছেই।

সবমিলিয়ে অফিস পাড়া আপনার কাছে কিছু সময়ের জন্যে দুর্বিসহ হয়ে উঠতে পারে। কিন্তু তাই বলে কি অফিসে ইস্তফা দিতে হবে? একদম নয়।

কারণ মাত্র কিছু সময় খরচ করে অফিসের সব ক্লান্তিকে দূর করে ফেলতে পারেন। অভিযাত্রীর পক্ষ হতে আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করবো এমন কিছু টিপস নিয়ে। যার সাহায্যে আপনি হয়ে উঠতে পারেন আরো চনমনে আর স্মার্ট। 

 

পছন্দের কলিগের সাথে গল্প করুন। অফিসের বাইরে যে দুনিয়া রয়েছে তা নিয়ে আড্ডায় মেতে উঠুন। টপিক হিসেবে খবরের পাতার কোন শিরোনাম বেছে নিতে পারেন কিংবা সম্প্রতি ঘটে যাওয়া কোন মজার অভিজ্ঞতা শেয়ার করা।

 

আবার অনেকে ক্ষেত্রে এটি উপযুক্ত কাজ করে না। কেউ কেউ নিজে একা থেকে বিশ্রাম নিতে পছন্দ করে। তাঁরা একদম নিরিবিলি পরিবেশে গিয়ে নিজের সাথে সময় কাটান। নিজের জীবনের কোন মজার স্মৃতি মনে করতে পারেন।

 

পায়চারী করতে পারেন কিংবা অফিসের ছাদ বা নিচে থেকে একটু ঘুরে আসতে পারেন। খোলা পরিবেশে আপনার বিচরণ মনকে চাঙা করে তুলবে। পাশাপাশি একটু এক্সারসাইজও হয়ে যাবে।

ক্লান্তি দূর করার সহজ ১০ উপায়
Image Source: pixabay.com

যদি ফুড লাভার হয়ে থাকেন তাহলে হাতের কাছে থাকা কোন মেন্যু থেকে পছন্দের খাবারটি অর্ডার করতে পারেন। পছন্দের খাবারের গন্ধে হয়ত পুরো দুনিয়া আপনার কাছে নস্যি হয়ে যাবে।

 

এক কাপ কফি নিয়ে খোশগল্পে মেতে যেতে পারেন কারো সাথে। এটা যে কেবল সামনাসামনি হতে হবে তার কোন মানে নেই। এটা ফেসবুক কিংবা ফোনেও হতে পারে। ফ্রী আছে এমন কোন বন্ধুকে ফোন দিয়ে কিছুক্ষণ অন্য দুনিয়ায় হারিয়ে যেতে পারেন।

পড়ুন- ১০ ধরণের মানুষ থেকে দূরে থাকুন সবসময়

কাজের চাপ এসে পড়লে ভাবুন চাকুরীটি না থাকলে আপনার কি অবস্থা হবে। এরপর বেকারত্বের অভিশাপের কথা ভেবে আপনার ক্লান্তি সরেও যেতে পারে।

 

পছন্দের কোন গান মিউজিক প্লেয়ারে চালু করে দিতে পারেন। চোখ বন্ধ করে গানের কথা আর সুরের মধ্যে ডুবে গিয়ে অফিসের মাঝে মাত্র কয়েক মিনিটে নিজেকে রিফ্রেশ করে তুলতে পারেন।

 

অফিসের টেবিল থেকে ছুটির তালিকা বের করে দেখতে পারেন। কিংবা উইকএন্ড আসতে আর কত দেরী তাও একবার দেখে নিতে পারেন।

আগপিছ না ভেবে চটপট সে অনুযায়ী একটা প্ল্যান করে নিতে পারেন। আসন্ন সুখের দিনের কথা ভেবে মুহূর্তেই উজ্জীবিত হতে পারবেন।

 

একটু বিনোদনের জন্যে ইউটিউবে ঢুঁ মারতে পারেন। কিংবা কোন ফেসবুক পেজে। ইউটিউবের মজার মজার ভিডিও আপনার মুখে হাসি ফুটিয়ে তুলবে। আর তখনই ক্লান্তি দূর হয়ে যাবে।

১০

শপিং করতে যারা ভালোবাসেন তাঁরা অনলাইন স্টোরগুলোর নিউ অ্যারাইভালের দিকে একটু চোখ রাখলে নিমিষে অন্য জগতে হারিয়ে যাবেন। পছন্দের পোষাক দেখতে দেখতে দেখবেন ক্লান্তি আর নেই। 

আপনার কাজের গতি আরো বাড়াতে পাই ফিঙ্গার্স মোটিভেশন নিবেদিত নিচের ভিডিওটি দেখে নিতে পারেন। আনন্দময় হোক আপনার কর্মজীবন

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!