Warning: include(all_function.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/saifpfqk/ovijatri.com/wp-content/plugins/jellywp-post-carousel-slider/index.php on line 15

Warning: include(all_function.php): failed to open stream: No such file or directory in /home/saifpfqk/ovijatri.com/wp-content/plugins/jellywp-post-carousel-slider/index.php on line 15

Warning: include(): Failed opening 'all_function.php' for inclusion (include_path='.:/opt/alt/php70/usr/share/pear') in /home/saifpfqk/ovijatri.com/wp-content/plugins/jellywp-post-carousel-slider/index.php on line 15
সারাজাত সৌমের কবিতা | কবিতাগুচ্ছ কবিতাগুচ্ছ | অভিযাত্রী সাহিত্য শিল্প
সারাজাত সৌমের কবিতা

সারাজাত সৌমের কবিতা

সারাজাত সৌমের কবিতা | কবিতাগুচ্ছ

সারাজাত সৌমের কবিতা:


শ্লেট


ওহ, আমার কালো পাথরের শ্লেট⎯

 

“ফ” লিখলেই ফুলগুলো জ্বলে উঠে
আর মাথার ভেতর বিহ্বল বিল
একজোড়া কালো হাঁস
              তারা ডুব দিয়ে উধাও

 

তারপর…

 

নানান ভাষার দিকে ছুটে
আর নিজের দিকে তাকায়
ভাবে, কে বানালো⎯
এইসব মাটির সঙ্গ, অঙ্গ, গহনা আমার

 

যখন শীত লাগে⎯
বসন্ত ছোট হয়ে আসে আঙিনায়!

 

কালো পাথরের শ্লেট⎯

 

আমি রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকি
টুকরো টুকরো চক হাতে

 

ছোট্ট একটি গোলাপের জন্য
ছোট্ট একটি আলাপের জন্য
ছোট্ট একটি বিলাপের জন্য

 

তুমি খণ্ড বিখণ্ড মৌমাছি⎯
মাঠ থেকে ছুটে আসা ঘ্রাণ
মিহি মৃত্যু বাথান
যখন মুক্তো করো সবকিছু স্তন থেকে

 

পাতারা ছেড়ে যায় পাতার প্রাণ!

 

যেন গাছ থেকে লাফিয়ে নামি
মানুষের ডামি, অদ্ভুত⎯
যা আমাদের সঞ্চয় 
                 আর গুঞ্জণ

 

দেখি, একটি ক্লিপ⎯
ফাঁকা রোদের ভেতর একা
সেমিজ কামড়ে পড়ে আছে

 

মাথা শূন্য। যে চলে গেছে⎯
তাকে গায়েবি গ্লাস দাও
তিনি দুগ্ধবতী নারী

 

আমাকে দুধ খাওয়াবে।


ক্ল্যাপ


এই ঋতু পার্পেল, পাখির পাল⎯
যখন আমি ঘুমিয়ে থাকি
           আর আমার চোখ
দুটি ছোট্ট ঝিনুক
দীর্ঘ সমুদ্রের নিচে একা

 

খালি গায়ে!

 

শান্তি খুঁজে আর ভাবে⎯
একদিন এই পৃথিবী পীতবর্ণ হবে
                  গাছের মণি,

 

সারি সারি⎯
বহুদূর থেকে ধুলা এসে
পাতার শরীরে গান বাজবে

 

মাথা বিহীন!

 

তুমি বলো, এইসব লুকিয়ে রাখো ঘরে
নিরাপদ বাক্সে। ব্যাংকে কিংবা⎯
অন্য কোথাও,

 

                    অন্য কারও কাছে⎯

সুন্দর এবং নিদ্রাহীন ভয়
এইযাত্রা যদি বাঁচে

 

জং-জীবন!

 

আমি কোথায়? কোন আয়তনে রাখা আছে
একটি সূর্যের টিপ⎯
                 আম্মা ওটা পড়েন

 

খুব সকালেই শুরু হয় কারখানা
তখন তুমি হাওয়া ফুলের মসৃণ মুখ
সূর্যোদয়ের পাশেই ফুটো!

 

আর আমি,

 

রাতের ক্ল্যাপ⎯
কল্পনা, যদিও ঠিক মানুষের মতো না।


ফুঁ


কোথাও উত্তর নেই।

 

এমনই বেঁচে থাকাই বাঁচবো আমি⎯
ঘুরে ঘুরে সব জায়গায়
ফুটে থাকবে প্রশ্ন!

 

অথচ কোনো উত্তর নেই।

 

তুমিও প্রশ্ন! বিশদ প্রশ্ন! অনন্ত প্রশ্ন!

 

উর্ব্ধে, তোমাকে ধরে যদি মারি টান
শুধু ফুলের গায়ে ফুঁ দিয়ে
যেন কিছু ধুলো সরালাম।

 

তারপর, একরাতে খুঁজতে থাকবো
মদ⎯পথ⎯মত, যে কোনো কিছুরই
এটা একটা অবাক চিহ্ন।

 

তুমি উল্টো শুয়ে থাকো⎯
আমিও উল্টো পায়ের কথা শুনবো।

 

তুমি কিভাবে এলে!
কতোদূর থেকে এলে!
মাধুর্য নিয়ে সংলাপে!

 

পৃথিবীর সমস্ত ঘরে আমার তোমার রুমাল
তুমি উড়িয়ে দাও⎯লালা, সাদা আর কালো

 

এমনকি আমাকে থাকাও⎯
আমি মিশে যাচ্ছি ধুলোয়, তাকে ফুঁ দাও

 

দ্যাখো, ছোট্ট বালি আমি⎯
তোমার চোখের ভেতর এখনও কেমন যন্ত্রণা দিচ্ছি।

 

সারাজাত সৌমের কবিতা

কেমন লেগেছে তা কমেন্ট করে জানান।

আরও কবিতা পড়ুন: 

সাদী শাশ্বতের একগুচ্ছ কবিতা

তাসনুভা অরিনের ৭টি কবিতা

নুসরাত নুসিনের কবিতা

 

 

Share this

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!